ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন - ভ্রমণ টিপস - GoArif

ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন | ভ্রমণ টিপস

ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন। ভ্রমণ টিপস এ আজকে আমি এই বিষয় নিয়েই আলোচনা করব।

বর্তমানে ডিজিটাল/ ইন্টারনেট এর যুগে এক মুহুর্ত ইন্টারনেট ছাড়া থাকার কথা ভাবা যায় না! আর সেটা যদি হয় ভ্রমণে, তাহলে তো সেটা মেনেই নেয়া হায় না।

ভ্রমণে গিয়ে চেক ইন দেয়া থেকে শুরু করে Facebook Messenger, Whats app, Viber, Hangout এ সবার সাথে যোগাযোগ রাখা, গুগল ম্যাপে লোকেশন ট্রাক করা, ভ্রমণের লাইভ করা/ ভ্রমণের ছবি বা ভিডিও শেয়ার করা, হোটেল খোঁজা বা হোটেল এর মান যাচাই করা সহ আরও কত কাজে যে ইন্টারনেট প্রয়োজন তা বলে শেষ করা যাবে না।

তো, এতো এতো প্রয়োজনীয় এই ইন্টানেট কিভাবে ভ্রমণের সময় পাবেন বা ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন সেটার জন্যই আজকেই এই পোস্ট।

চলুন শুরু করা যাক…

ভ্রমণে বিভিন্ন দেশের জরুরী নাম্বার গুলো জানেন তো?

ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন - GoArif
ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন।

ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন | ভ্রমণ টিপস


আন্তর্জাতিক ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহার করুন

ইন্টারন্যাশনাল পকেট ওয়াইফাই হটস্পট মূলত মোবাইল ইন্টারনেট। যেটা কোন সেটআপ এর জামেলা ছাড়াই আপনি মোবাইল ইন্টারনেট এর যে কোন কাজ করতে পারবেন।

আন্তর্জাতিক ভাবে এই সেবাটি দিচ্ছে ভিশন গ্লোবাল ওয়াইফাই। তারা আপনাকে তাদের ইন্টারনেট ব্যাবহার করার জন্য একটি ইউজারনেম এবং একটি পাসওয়ার্ড দিয়ে থাকে।

যেহেতু তারা আন্তর্জাতিক ভাবে এই সেবা দিচ্ছে তাই তাদের সেবার মান খুবই ভালো এবং কোন সমস্যা ছাড়াই আপনি নিশ্চিন্তে ইন্টারনেট ব্যাবহার করতে পারবেন।

বেশী কাভারেজ দেয়া লোকাল সিম ব্যাবহার করুন

আপনি যদি একজন ভ্রমণ প্রিয় মানুষ হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে মোবাইল সিম কেনার সময় কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে।

মনে করুন আপনি ভ্রমণে বান্দারবান, খাগড়াছড়ি বা নীলগিরির মত জায়গায় গেলেন। সেখানে কিন্তু আপনি টেলিটক এর ইন্টারনেট এর কানেকশন ঠিক মত পাবেন না।

আপনাকে বেশী কাভারেজ দেয়া লোকাল সিম ব্যাবহার করতে হবে। আপনাকে গ্রামীণ সিম ব্যাবহার করতে হবে।

তাহলে আপনি মোটামোটি মানের ইন্টারনেট কানেকশন পাবেন।

তাই সিম কিনার সময় ভ্রমণের বিষয়টি মাথায় রাখবেন।

আরও পড়ুনঃ ভ্রমণে নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ১০টি টিপস

ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহারের সুবিধা সমূহ

ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহারের সুবিধা রয়েছে অনেক। যারা ইতিপূর্বে হটস্পট ব্যাবহার করেছেন তারা জানেন যে এটার কত উপকারিতা রয়েছে।

অনেক সময় প্রিয়জন এর সাথে কথা বলার সময় ভয়েস বা ভিডিও কল করার জন্য অনেক ভালো মানের ইন্টারনেট কানেকশন এর প্রয়োজন হয়।

তা নাহলে, আপনি Hello বলার পর আপর প্রান্তে যিনি আছেন তিনি শুনতে পাবেন h e… l l ooo ।

এছাড়া যদি কয়েকজন মিলে ভ্রমণে যান তাহলে এই ওয়াইফাই হটস্পট আপনাদের অনেক কাজে দিবে। একটি ওয়াইফাই হটস্পট একসাথে ৪-৬ জন কে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত করতে পারে।

এতে ইন্টারনেট বিল এর পরিমাণও কমে আসবে। আর, আপনি আরামছে ইন্টারনেট ব্যাবহার করতে পারবেন।

তাই আমি বলল, সম্ভব হলে ভ্রমণে ওয়াইফাই হটস্পট ব্যাবহার করুন।

কিভাবে একটি ওয়াইফাই হটস্পট ভাড়া নিবেন

ভিশন গ্লোবাল ওয়াইফাই থেকে হটস্পট ভাড়া করার জন্য, তাদের ওয়েবসাইটে যান, একটি ওয়াইফাই রাউটারের জন্য আবেদন করুন।

ভিশন গ্লোবাল ওয়াইফাই আপনার ভ্রমণের ১দিন আগে আপনার নির্দিষ্ট করা জায়গায় পৌছে দিবে।

তবে একটি শর্ত হচ্ছে, আপনি রাউটারটি পাওয়ার জন্য আপনার ভ্রমণের কমপক্ষে ৪দিন আগে আবেদন করতে হবে।

এখানে উল্লেখ্য যেঃ ভিশন গ্লোবাল ওয়াইফাই ইউরোপ ও এশিয়ার পাশাপাশি ১৩০ টিরও বেশি দেশে সার্ভিস দিচ্ছে।

ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহার করার জন্য টিপস

এবার আমি ওয়াইফাই হটস্পট ব্যবহার করার জন্য কিছু টিপস দিচ্ছিঃ

আপনার ই মেইল অপটিমাইজ করুন

আপনি কি জানেন যে আপনি আপনার ই-মেইলে আপনার ডাউনলোডের আকার সীমাবদ্ধ করতে পারেন?

ইমেইলে কিন্তু এই সুবিধাটি রয়েছে। আপনি চাইলেই আপনার ইমেইল অপটিমাইজ করতে পারেন। এটি আপনার ওয়াইফাই ব্যবহার কম করার একটি দুর্দান্ত উপায়।

প্লে স্টোর বা আপস স্টোর অপটিমাইজ করুন

আমরা যে এন্ড্রয়েড বা iOS যেটাই ব্যাবহার করিনা কেন, একটা বিষয় খেয়াল করবেন ওয়াইফাই কানেক্ট পাওয়ামাত্র মোবাইলে থাকা এপস গুলো অটোম্যাটিক ভাবে আপডেট নিতে থাকে।

আপনি চাইলেই ভ্রমণের সময় ইন্টারনেট খরচ কমানোর জন্য প্লে স্টোর বা এপস স্টর এর সেটিং থেকে এপস এপডেট অফ করে দিতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ ভ্রমণের সেরা ২৫টি টিপস

আপনার ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ্লিকেশন চেক করুন

আপনার মোবাইলের ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ্লিকেশন চেক করুন। যে আপস গুলো অপ্রয়োজনীয় বা ব্যাবহার করছেন না, সেগুলো মোবাইল থেকে রিমোভ করেদিন।

এই এপস গুলো আপনার মোবাইলের আপনার ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে ইন্টারনেট এবং ব্যাটারি চার্জ দুটোই ফুড়িয়ে দিচ্ছে।

ব্যাকগ্রাউন্ডে কোন অ্যাপ্লিকেশানগুলি চলছে সেটা দেখার জন্য আপনার মোবাইলের সিস্টেম সেটিংসে যান এবং এগুলো বন্ধ করুন।

আর, আপনি যদি অ্যাপল ডিভাইস ব্যবহার করেন তবে এটি “ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ রিফ্রেশ” এর অধীনে থাকবে।

তো এই ছিলঃ ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন নিয়ে পোস্ট। আশাকরি লেখাটি ভালো লেগেছে আপনার।


আমার ফেসবুকঃ GoArif | টুইটারঃ GoArif

GoArif.com ওয়েবসাইটের কোথাও কোন ভুল বা অসংগতি আপনার দৃষ্টিগোচর হলে তা অনুগ্রহ করে আমাকে অবহিত করুন, যেন আমি দ্রুত সংশোধন করতে পারি।
আরিফ হোসেন

আমি একজন ভ্রমণ পিপাসু। ভ্রমণ করতে আমার খুবই ভালো লাগে। তাইতো সময় পেলে ভ্রমণে ছুটে যাই। কোন ভ্রমণই আমার শেষ হয়ে শেষ হয় না। বারংবার আমার সেই স্থানে ছুটে যেতে ইচ্ছে করে। কারন, আমি যে প্রকৃতি ভালবাসি।

সব পোস্ট দেখুন

মন্তব্য

avatar
  সাবস্ক্রাইব  
নোটিফিকেশন পান