ভ্রমণে টাকা বাঁচানোর কিছু দুর্দান্ত উপায় - GoArif

ভ্রমণে টাকা বাঁচানোর কিছু দুর্দান্ত উপায়

আজকে আমি ভ্রমণে টাকা বাঁচানোর কিছু দুর্দান্ত উপায় নিয়ে আলোচনা করব। কোথাও ভ্রমণে গেলে এই উপায় গুলো জানা থাকলে আপনার ভ্রমণ খরচ কিছুটা কমে যাবে।

তো চলুন আজকের আলোচনা শুরু করা যাক…

ভ্রমণে কিভাবে ইন্টারনেট এর সাথে সংযুক্ত থাকবেন পড়েছেন কি?

ভ্রমণে টাকা বাঁচানোর কিছু দুর্দান্ত উপায় - GoArif
ভ্রমণে টাকা বাঁচানোর কিছু দুর্দান্ত উপায়

ভ্রমণে টাকা বাঁচানোর কিছু দুর্দান্ত উপায়


কম জনপ্রিয় ট্রাভেল সাইট থেকে আপনার বুকিং মূল্য যাচাই করুন

অনেক জনপ্রিয় ট্রাভেল সাইট রয়েছে যেগুলোর নাম ট্রাভেলারগন এক নামেই চিনেন। এই সাইট গুলো বেশী জনপ্রিয়তা পাবার ফলে তাদের ডিমান্ড অনেক বেশী থাকে। তাই কম জনপ্রিয় ট্রাভেল সাইট থেকে আপনার বুকিং মূল্য যাচাই করুন।

জনপ্রিয় এবং কম জনপ্রিয় সাইট গুলো ভালো করে যাচাই করলে দেখবেন যে, জনপ্রিয় সাইট থকে কম জনপ্রিয় সাইট গুলো তে অনেক বেশী অফার/ ডিসকাউন্ট থাকে।

আপনি বিমানের টিকিট কাটা এবং হোটেল এর বুকিং এইসব সাইট গুলো থেকে করতে পারেন।

বিঃদ্রঃ একটা বিষয় খেয়াল রাখবেন যে, বেশী ডিসকাউন্ট নিতে গিয়ে আবার পচা হোটেল/ সার্ভিস ভালো না এমন সাইটে না বুকিং দিয়ে দেন।

ঠিক সময়ে যাত্রা শুরু করা

মনে করেন আপনার ফ্লাইট সন্ধ্যা ৭টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে। আপনার বাসা যাত্রাবাড়ী। এখন আপনি যদি ৬টায় বাসা থেকে বের হন তাহলে কি ফ্লাইট ধরতে পারবেন?

বর্তমানে ঢাকার যে অবস্থা! প্রচুর জ্যাম… ১ ঘন্টার পথ পাড়ি দিতে মাঝে মাঝে ৫ ঘন্টা সময় লেগে যায়। গত কয়েকদিন আগেরইতো কথা। আমি জাফলং, সিলেট যাব বাসে করে। মিরপুর থেকে মহাখালী গিয়ে বাসে উঠতে হবে।

আমি বাস ছাড়ার ৪ ঘন্টা আগে রওনা দিয়েও ভয় পাচ্ছিলাম। ঠিক সময়ে পৌছতে পারব কিনা সেটা নিয়ে। ঢাকায় আসলেই প্রচুর জ্যাম। কি করবেন কোন উপায় নেই। আপনাকে মেনে নিতেই হবে।

তাই ভ্রমনের ক্ষেত্রে বাসে, ট্রেনে বা বিমানে উঠার জন্য আগে থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখুন। না হলে বাস, ট্রেন বা বিমান মিস করে আবার অতিরিক্ত টাকা দিয়ে টিকিট কেটে যেতে হবে।

তবে সেটাও যদি কপাল ভালো থাকে তাহলে সাথে সাথে টিকিট পাবেন। না হলে বাসায় এসে অনুতাপ করা ছাড়া কিছু করার থাকবে না।

ভ্রমণ করে অর্থ উপার্জন করুন

বর্তমানে ভ্রমণ কে অনেকেই পেশা হিসেবে নিতে শুরু করেছে। তবে কাউকে যদি বলা হয় আপনি দুনিয়ার সব সুন্দর সুন্দর জায়গা ঘুরে বেড়াবেন এতে ভ্রমনের পাশাপাশি আপনি টাকাও উপার্জন করতে পারবেন। তাহলে ব্যাপারটা কি মন্দ হয় বলেন?

অনেকে বলেন এটা কি করে সম্ভব! সবারইতো ভ্রমণ ভালো লাগে। তাই না?

আমি বলি সম্ভব। আমি একা নই আরো অনেকেই বলে এটা সম্ভব। জানি এভাবে বিশ্বাস করা একটু কষ্টকর। চলেন একজন সম্পর্কে একটু বলিঃ

তার নাম ড্র বিনস্কাই (Drew Binsky) । আমার থেকে বয়সে একটু বড় একটি ছেলে। গ্রেজুয়েশান কমপ্লিট করে মনমত চাকরি খুঁজে পাচ্ছিল না। একদিন ইন্টারনেটে ঢুকে ট্রাভেল করে ইনকাম করার বিষয়ে জানতে পারে।

ড্র তখন ঠিক মত ইংরেজি বলতে পারত না। এরপর নিজের টিউশনির টাকা দিয়ে প্রায় ৬ মাস ইংলিশ শেখার কোর্স করে। এরপর ট্রাভেলিং শুরু করে।

আজ সেই ড্র বিনস্কাই বিশ্বের নাম করা একজন ট্রাভেলার। এই বিষয় নিয়ে আরেকদিন গল্প করব, আজ চলুন মুল কথায় ফিরে যাই।

কথা বলছিলাম ভ্রমণ করে অর্থ উপার্জন করার ব্যাপারে। এটা সত্যি আপনি চাইলে ভ্রমণ করে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

আরও পড়ুনঃ ভ্রমণে বিভিন্ন দেশের জরুরী নাম্বার গুলো জানেন তো?

রোমিং চার্জ

প্রথম প্রথম বিদেশে ভ্রমনে গেলে অনেকেই এই ভুলটা করেন। বিদেশ এসেছেন তো দেশে ফোন করে বাবা মা বা আপনজন এর সাথে কথা বলতে ইচ্ছা করে। দিয়ে দেন সাথে সাথে ইন্টারন্যাশনাল কল।

এতে রোমিং চার্জ হয় অনেক বেশী। আমি একবার আমার এক চাচতো ভাইকে বাংলাদেশ থেকে আমেরিকা কল দিয়েছিলাম। ২ মিনিটে আমার ১০০ টাকার মত নাই। এটা অবশ্য অনেক আগের ঘটনা।

তো বিদেশ ভ্রমনে গিয়ে এই ভুল টা করা যাবে না। বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যাবহার করে আপনি সহজেই অল্প খরচে কথা বলতে পারেবন। চাইলে প্রিয়জনের সাথে ভিডিও কলে কথা বলতে পারবেন।

লোকাল দোকান থেকে কেনাকাটা করুন

লোকাল শুনেই যদি আপনার মন খারাপ হয়ে যায় তাহলে এই লেখাটা পড়া বাদ দিন। আর খরচ কমাতে চাইলে লেখাটা মন দিয়ে পড়ুন।

সুপারশপ গুলোতে অনেক সময় পচা মাছ বা অন্যান্য সামগ্রি পাওয়া যায় যা টাটকা নয়। আবার এগুলো দামেও বেশী। কিন্তু আপনি যদি লোকাল মার্কেট থেকে কেনা কাটা করেন তাহলে আপনি সুলভ মূল্যে টাটকা জিনিসপত্র পাবেন।

জামা কাপড় এর বেলায়ও অনেকটা একই রকম। যারা ঢাকা কলেজ এর সামনে থেকে কখনো কিছু কিনেছেন তারা বলতে পারবেন যে, এইকই জিনিস স্টাইলিশ দোকান গুলোতে দামের অনেক পার্থক্য থাকে।

তাই ভ্রমনে খরচ কমাতে চাইলে লোকাল দোকান থেকে কেনাকাটা করুন।

নিজের ব্যাগ/ লাগেজ নিজে বহন করুন

আমরা বাঙ্গালীরা নিজের ব্যাগ বা লাগেজ নিজে বহন করতে নারাজ। এতে নাকি দাম কমে যায়। অনেকে বলেন, এগুলোত কুলিদের কাজ আমরা করব কেন!

প্রথমে বলি নিজের কাজ নিজে করাতে দাম কমে না বরং দাম বাড়ে। আমরা এসব ছোট ছোট অনীহা গুলোর জন্য অনেক পিছিয়ে আছি। প্রায়শই এসব কথা উঠলে জাপান এর কথা বলে অনেকে। জাপানের মানুষ তাদের নিজের কাজ নিজে করতে পছন্দ করে।

বিদেশ থেকে কেউ বেড়াতে আসলে আমরা এর বাস্তব উদাহরণ দেখতে পাই।

তাই, ভ্রমনে ব্যাগ বা লাগেজ অন্য কে দিয়ে না পরিবহণ করে নিজে বহন করে আপনি ভ্রমণ খরচ কমাতে পারেন।

ট্যাক্সি ভাড়া না করে পাবলিক পরিবহনে যাতায়াত করুন

ভ্রমণে ট্যাক্সি ভাড়া না করে পাবলিক পরিবহনে যাতায়াত করে আপনি ভ্রমণ খরচ কমাতে পারেন। যদিও পাবলিক ট্রান্সপোর্টে যাতায়েত করা একটু কষ্টকর।

একটু কষ্ট করে যদি ভ্রমণ খরচ অনেক কমানো যায় তাহলে তো সেটাই ভালো, কি বলেন?

আরও পড়ুনঃ ভ্রমণের সেরা ২৫টি টিপস

ডিজিটাল গাইড ব্যবহার করুন

ভ্রমণে ডিজিটাল গাইড ব্যবহার করুন। বর্তমানে এই টেকনোলজির যুগে আপনি ভ্রমণে একজন এলাদা করে গাইডার না নিলেও পারবেন।

এই ডিজিটাল গাইড হিসেবে কাজ করবে গুগল ম্যাপ বা ট্রাভেল সাইট গুলো। এখন আপনি বিশ্বের যে কোন স্থানে ভ্রমণে যান না কেন, আপনি আপনার হাতে থাকা মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ করে ম্যাপ ফলো করে নির্দিষ্ট জায়গায় পৌছে যেতে পারবেন।

গুগল ম্যাপ বর্তমানে অনেক আপগ্রেডেড। এটা আপনি যে রাস্তা দিয়ে ভ্রমণ করতে চান সেখানে ট্র্যাফিক জ্যাম আছে কিনা তা আপনাকে বলে দিতে পারে।

এছাড়া নির্দিষ্ট জায়গায় পৌছতে কত সময় লাগবে তাও বলে দিতে পারে। তাই ভ্রমণে ডিজিটাল গাইড ব্যবহার করুন।


আমার ফেসবুকঃ GoArif | টুইটারঃ GoArif

GoArif.com ওয়েবসাইটের কোথাও কোন ভুল বা অসংগতি আপনার দৃষ্টিগোচর হলে তা অনুগ্রহ করে আমাকে অবহিত করুন, যেন আমি দ্রুত সংশোধন করতে পারি।
আরিফ হোসেন

আমি একজন ভ্রমণ পিপাসু। ভ্রমণ করতে আমার খুবই ভালো লাগে। তাইতো সময় পেলে ভ্রমণে ছুটে যাই। কোন ভ্রমণই আমার শেষ হয়ে শেষ হয় না। বারংবার আমার সেই স্থানে ছুটে যেতে ইচ্ছে করে। কারন, আমি যে প্রকৃতি ভালবাসি।

সব পোস্ট দেখুন

মন্তব্য

avatar
  সাবস্ক্রাইব  
নোটিফিকেশন পান