যে ৫ কারনে জীবনে একবার হলেও মিরপুর ভ্রমণ করা উচিৎ আপনার - GoArif

যে ৫ কারনে জীবনে একবার হলেও মিরপুর ভ্রমণ করা উচিৎ আপনার

যে ৫ কারনে জীবনে একবার হলেও মিরপুর ভ্রমণ করা উচিৎ আপনার। তা তা থৈ থৈ… তা তা থৈ থৈ এর দেশ মিরপুর। দুঃখিত, মিরপুর কোন দেশ নয়! মিরপুর বাংলাদেশের ঢাকা শহরের একটি থানা!

আমি আরিফ হোসেন আপনাদের ভ্রমণ বন্ধু আজকে কথা বলব মিরপুর নিয়ে এবং সাথে পরিচয় করিয়ে দিব মিরপুর এর বিখ্যাত দর্শনীয় স্থান এবং ঐতিহ্যের সাথে।

চলুন শুরু করা যাক…

যে ৫ কারনে জীবনে একবার হলেও মিরপুর ভ্রমণ করা উচিৎ আপনার তা নিয়ে আমি এক এক করে বলছি। শুরুতেই যে কারনে একবার হলেও মিরপুর ভ্রমণ করবেন তার প্রথম কারণটি বলছি।

মিরপুর ভ্রমণ


১। সড়ক পথে নৌপথের ছোঁয়া

আহা… একমাত্র মিরপুরেই আপনি এই বিশেষ এবং একমাত্র সার্ভিস “সড়ক পথে নৌপথের ছোঁয়া” পাবেন। সারপ্রাইজ… সারপ্রাইজ! এটা যেন অষ্টম আশ্চর্য।

যারা বিখ্যাত এই মিরপুরে বাস করেন অথবা মিরপুরে একবার হলেও গিয়েছেন তারা নিজেদের কে ভাগ্যবান বলে মনে করে থাকেন।

পৃথিবীতে বাংলাদেশের মিরপুরেই আপনি একমাত্র এই বিশেষ সার্ভিসটি পাবেন যেখানে সড়ক পথে আপনি পাবেন ট্রলার বা নৌকা ভ্রমণের ছোঁয়া! যদিও অনেকে বলে থাকেনঃ সড়ক পথে বিমানের ছোঁয়া! কিন্তু একমাত্রা মিরপুরেই আপনি পাচ্ছেন সড়ক পথে ৩*১ অর্থাৎ সড়ক পথে বিমানের ছোয়ার পাশাপাশি ট্রলার বা নৌক ভ্রমণের ছোঁয়া।

তাই আর দেরি কেন? এখনই মিরপুর এর উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করুন। আপনার ভ্রমণ হোক পানিময়! ওহ দুঃখিত; আনন্দময়।

বিঃদ্রঃ উপরের এই বিশেষ সার্ভিস টি পেতে হলে আপনাকে বৃষ্টির সময় মিরপুরে আসতে হবে। প্রচন্ড ঝড় বা কালবৈশাখীর জন্য অপেক্ষা না করে হাল্কা গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হলেই চলে আসুন মিরপুর। আশাকরি মিরপুর আসতে আসতে রাস্তায় কোমর পরিমান পানির দেখা পেয়ে যাবেন।

২। মশার ভালবাসা

জি, আপনাকেই বলছি… বিশ্বের অন্যান্য জায়গায় আপনি কয়েক প্রজাতির মশার দেখা পেলেও একমাত্র মিরপুরেই আপনি মশার সকল জাতের দেখা পাবেন!

এখানে রয়েছে ডেঙ্গু মশা থেকে শুরু করে এডিস মশা, ভ্রদ্র মশা, বাইট্টা মশা-লম্বা মশা, শিক্ষিত মশা-অশিক্ষিত মশা, গায়ক মশা, নায়ক মশা ইত্যাদি সকল প্রজাতির মশা।

বাংলাদেশে একমাত্র মিরপুর থেকেই মশার সাপ্লাই দেয়া হয়ে থাকে। অন্য এলাকায় হুমকি দেয়ার জন্যও এখান থেকে গুন্ডা মশা ভাড়া দেয়া হয়।

মিরপুরে ছোট ছোট যে লেক গুলো রয়েছে; আপনি যে কোন লেক এর পাশে দাঁড়িয়ে ১ মিনিট চোখ বন্ধ করে রাখলেই টের পাবেন যে আপনি শূন্যে ভাসছেন! কারন মশারা ইতিমধ্যে আপনাকে চ্যাংদোলা করে মাটি থেকে উপরে তুলে নিয়ে হৈ হুল্লোড় করা শুরু করে দিয়েছে।

এছাড়া মিরপুর এর যে কোন খোলা জায়গায় কিছু সময়ের জন্য দাঁড়ালেই আপনি লক্ষ্য করবেন আপনার মাথার উপর কয়েক হাজার মশা ঘূর্ণিঝড় ফনীর মত ঘুরপাক শুরু করে দিয়েছে।

আপনি যদি একজন ভ্রমণ ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন তাহলে সাথে সাথে অন্য আরেকজনের হাতে ক্যামেরা দিয়ে মশা সহ কয়েকটি ছবি তুলে নিতে পারেন। অথবা আপনি চাইলে মশার সাথে সেলফিও তুলতে পারবেন।

তাহলে আর দেরি কেন? এখনি আপনার ব্যাকপ্যাক নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন এবং মিরপুর এর উদ্দেশ্যে যাত্রা করুন।

৩। ধুলা-বালির কুয়াশা

আমরা সবাই জানি যে একমাত্র শীতকালেই আমরা কুয়াশার দেখা পাই। তাও আবার শীতের একেবারে সকালের দিকে। আবার কোন বছর যদি বেশি শীত পড়ে তাহলে দুপুরের দিকেও কিছুটা কুয়াশার দেখা মিলে।

কিন্তু আপনি জানেন কি? বিশ্বের একমাত্র একটি জায়গাই রয়েছে যেখানে আপনি সব সময়… আই মিন, সব সময়… হোক সেটা শীতকাল কিংবা গ্রীষ্মকাল সব ঋতুতেই আপনি কুয়াশার দেখা পাবেন! আর এই বিশেষ জায়গাটি হচ্ছে মিরপুর।

কি এক্ষুনি মিরপুরে যেতে ইচ্ছে করছে? ওয়েট… মিরপুরে যাওয়ার আগে সাথে একটি মাক্স এবং সানগ্লাস নিয়ে নিয়েন!

৪। বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানা

এতো এতো চমৎকার এবং আশ্চর্যজনক বিষয় ছাড়াও মিরপুরে কিছু সাধারণ এবং বিখ্যাত দর্শনীয় স্থান রয়েছে। তার ভিতরে একটি হলঃ বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানা।

এটি পূর্বে মিরপুর চিড়িয়াখানা নাম ছিল; পরবর্তীতে মিরপুর চিড়িয়াখানা নাম বাদ দিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় চিড়িয়াখানা নামকরন করা হয়। এই নিয়ে আরও বিস্তারিত দেখুনঃ চিড়িয়াখানা ভ্রমণ

এখানে রয়েছে বেশ উন্নত এবং উচু বংশের বানর। এছাড়া অন্যান্য পশু-পাখি এবং নানা প্রকারের মানুষের দেখাও পাবেন।

৫। ন্যাশনাল বোটানিক্যাল গার্ডেন

ন্যাশনাল বোটানিক্যাল গার্ডেন যেটার মূল নাম জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান বা বাংলাদেশ ন্যাশনাল হার্বেরিয়াম। বাংলাদেশে উদ্ভিদ প্রজাতি সংরক্ষণ, গবেষণা ও প্রদর্শনের সবচেয়ে বড় কেন্দ্র হিসেবে এই গার্ডেনটি বিবেচিত।

মাশা আল্লাহ্‌… এখানে সবই সবুজ। এখানে প্রায়সময়ই গাছের গোড়া গুলো বাদামি রঙ ধারন করে! কি এক অদ্ভুদ ব্যাপার তাই না?

এই সবকিছু দেখতে হলে আপনাকে আসতে হবে বিখ্যাত ঢাকার এই বিখ্যাত মিরপুরে। আমি ভ্রমণের উদ্দেশ্যে মিরপুরের দিকে রওনা দিলাম। আমার এখনও ন্যাশনাল বোটানিক্যাল গার্ডেন এর কিছু অংশ দেখার বাকি রয়েগেছে।

আপনি রওনা দিচ্ছেন কবে? না আসলে কিন্তু জীবন বৃথা হয়ে যাবে! বলে দিলুম…

GoArif.com ওয়েবসাইটের কোথাও কোন ভুল বা অসংগতি আপনার দৃষ্টিগোচর হলে তা অনুগ্রহ করে আমাকে অবহিত করুন, যেন আমি দ্রুত সংশোধন করতে পারি।
আরিফ হোসেন

আমি একজন ভ্রমণ পিপাসু। ভ্রমণ করতে আমার খুবই ভালো লাগে। তাইতো সময় পেলে ভ্রমণে ছুটে যাই। কোন ভ্রমণই আমার শেষ হয়ে শেষ হয় না। বারংবার আমার সেই স্থানে ছুটে যেতে ইচ্ছে করে। কারন, আমি যে প্রকৃতি ভালবাসি।

সব পোস্ট দেখুন

1
মন্তব্য

avatar
1 মন্তব্য
0 উত্তর
0 ফলোয়ার
 
সর্বাধিক প্রতিক্রিয়া মন্তব্য
হটেস্ট মন্তব্য
  সাবস্ক্রাইব  
নতুন পুরনো সেরা ভোট
নোটিফিকেশন পান
রুমারু
অতিথি
রুমারু

হাহা দারুন লিখেছো….